Alta Dighi National Park

আলতাদিঘি জাতীয় উদ্যান

"Alta Dighi National Park" is situated at Dhamoirhat Upazila in Naogaon District. It features 131.57 hectares of preserved forest, 35.49 hectares reserved forest and 97.06 hectares of acquired forest area covering Moisur, Joy Joypur, Choto Mollapara, Bakharpur, Chakjadu, Jotmadutpur and Dadanpur Mouja. This national park is an attractive tourist spot for its charming natural beauty. There is a pristine water body named Alta Dighi inside the natural Shal forest covering an area of 42.81 acres. 'Alta Dighi National Park' has been raised concentrating on the Alta Dighi the length of it being 1.20 km and the width is 0.20 km. The park surrounding Alta Dighi, natural Shal trees and the diverse life style of the Saotal ethnic minorities have increased the significance and beauty of the Dighi, which is enjoyed by the visitors and pleasure seeking people from different parts of the country. The Ministry Environment and Forest declared it as a 'National Park' in the year 2011. The main tree of this forest is Shal. Apart from Shal trees, there are Amlaki, Horitaki, Bahera, Shimul, Kumvi and Tendu trees in plenty. Different wild animals like fox, mongoose, fish-prey, tigers, jackles and lizards are found here. We find here different birds speices also such as Autopsy, the Magpie Robbin, the Shayma, the Hari Chacha, the Cormorants, the Sparrow, Fingei, the Munia, the Mavis and so on. The mound of the white ant seems attractive in relation with the Shalbon.

‘আলতাদিঘি জাতীয় উদ্যান' নওগাঁ জেলার ধামইরহাট উপজেলায় অবস্থিত। মইশুড়, জয়জয়পুর, ছোট মোল্লাপাড়া, বাখরপুর, চকযদু, জোতমামুদপুর ও দাদনপুর মৌজার ১৩১.৫৭ হেক্টর সংরক্ষিত বন, ৩৫.৪৯ হেক্টর রক্ষিত বন ও ৯৭.০৬ হেক্টর অর্জিত বন নিয়ে মনোরম ও প্রাকৃতিক সৌন্দর্যমন্ডিত জাতীয় উদ্যানটি পর্যটনের একটি আকর্ষণীয় কেন্দ্র। প্রাকৃতিক শালবন এলাকার মাঝে ৪২.৮১ একর আয়তনের স্বচ্ছ জলের একটি সরোবর হলো আলতাদিঘি। পূর্ব-পশ্চিমে ১.২০ কি.মি. দৈর্ঘ্য ও ০.২০ কি.মি. প্রস্থের এই দিঘিকে ঘিরে গড়ে উঠেছে আলতাদিঘি জাতীয় উদ্যান। আলতাদিঘির চতুর্পাশের বাগান, প্রাকৃতিক শালবন এবং সাঁওতাল আদিবাসীদের ভিন্নধর্মী জীবনাচরন দিঘিটির গুরুত্ব ও সৌন্দর্য আরও বৃদ্ধি করেছে যা উপভোগ করার জন্য দেশের বিভিন্ন অ ল থেকে অগণিত দর্শনার্থী ও সৌন্দর্য পিয়াসী মানুষ সমবেত হন। পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয় ২০১১ সালে এটিকে ‘আলতাদিঘি জাতীয় উদ্যান হিসেবে ঘোষণা করেছে। এখানকার প্রধান বৃক্ষ হলো শাল। এছাড়াা আমলকী, হরিতকী, বহেরা, শিমুল, কুম্ভী, তেন্ডু ইত্যাদি বৃক্ষের সমাহার রয়েছে। এখানে শিয়াল, বেজী, বন বিড়াাল, মেছো বাঘ, খেকশিয়াল, গুইসাপ ও বিভিন্ন প্রজাতির পাখি যেমন ময়না, টিয়া, শালিক, ঘুঘু, দোয়েল, শ্যামা, হাড়িচাচা, পানকৌড়ি, চড়ই, ফিঙ্গে, মুনিয়া, বুলবুলি রয়েছে। শালবনকে আলিঙ্গন করে গড়ে ওঠা উই পোকার ঢিবিগুলো আকর্ষণীয়।